বাংলা » ইন্দোনেশিয়ান   রং


১৪ [চোদ্দ]

রং

-

14 [empat belas]

Warna

১৪ [চোদ্দ]

রং

-

14 [empat belas]

Warna

পরবর্তী দেখার জন্য ক্লিক করুনঃ   
বাংলাbahasa Indonesia
বরফ সাদা ৷ Sa--- b------- p----.
সূর্য হলুদ ৷ Ma------ b------- k-----.
কমলালেবু কমলা ৷ Bu-- j---- b------- o-----.
   
চেরী লাল ৷ Bu-- c--- b------- m----.
আকাশ নীল ৷ La---- b------- b---.
ঘাস সবুজ ৷ Ru---- b------- h----.
   
মাটি বাদামী ৷ Ta--- b------- c------.
মেঘ ধূসর ৷ Aw-- b------- a------.
টায়ার কালো ৷ Ba- b------- h----.
   
বরফের রং কী? সাদা ৷ Ap- w---- s----? P----.
সূর্যের রং কী? হলুদ ৷ Ap- w---- m-------? K-----.
কমলালেবুর রং কী? কমলা ৷ Ap- w---- j----? O-----.
   
চেরীর রং কী? লাল ৷ Ap- w---- b--- c---? M----.
আকাশের রং কী? নীল ৷ Ap- w---- l-----? B---.
ঘাসের রং কী? সবুজ ৷ Ap- w---- r-----? H----.
   
মাটির রং কী? বাদামী ৷ Ap- w---- t----? C------.
মেঘের রং কী? ধূসর ৷ Ap- w---- a---? A------.
টায়ারের রং কী? কালো ৷ Ap- w---- b--? H----.
   

নারী ও পুরুষ ভিন্নভাবে কথা বলা

এটা সবার জানা যে, নারী ও পুরুষ দুটি ভিন্ন স্বত্তা। কিন্তু এটা কি আমরা জানি যে, নারী ও পুরুষ ভিন্নভাবে কথা বলে? হ্যাঁ! অসংখ্য গবেষণা এটা প্রমাণ করেছে। পুরুষের থেকে নারীদের কথা বলার ধরণ অনেকটাই ভিন্ন। তাদের কথা বলার ধরণ পরোক্ষ ও সংযত। অন্যদিকে পুরুষেরা সুস্পষ্ট ও প্রত্যক্ষভাবে কথা বলে। কিন্তু তাদের কথা বলার বিষয়বস্তুও ভিন্ন। পুরুষদের কথা বলার বিষয় সাধারণত খবর, অর্থনীতি অথবা খেলাধুলা। পক্ষান্তরে, নারীরা বিভিন্ন সামাজিক বিষয় যেমন, পরিবার ও স্বাস্থ্য নিয়ে কথা বলতে পছন্দ করে। পুরুষদের পছন্দের বিষয়- ঘটনা। আর নারীদের- মানুষ। এটা লক্ষণীয় যে, নারীরা অপেক্ষাকৃত দুর্বল ভাষা ব্যবহার করে। তাই তারা কথা বলার সময় সতর্ক ও ন¤্র থাকে।

নারীরা পুরুষদের তুলনায় প্রশ্নও বেশী করে। এটা করতে গিয়ে তারা সামঞ্জস্য রাখার চেষ্টা করে ও ঝামেলা এড়াতে চাই। এছাড়াও, আবেগ প্রকাশ করার জন্য নারীদের শব্দভান্ডার বেশী। পুরুষদের কাছে কোন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা প্রতিযোগিতার শামিল। তাদের ভাষা অনেকটাই উত্তেজনাপূর্ণ ও আক্রমনাত্বক। নারীদের চেয়ে পুরুষরা সারা দিনে অনেক কম শব্দ ব্যবহার করে। কিছু গবেষক মনে করেন যে, এই ভিন্নতার কারন মস্তিষ্কের গঠন। কারণ নারী-পুরষের মস্তিষ্কের গঠন ভিন্ন। এই জন্যই তাদের কথা বলার ধরণ ভিন্ন হয়। আমাদের ভাষায় অন্যান্য বিষয় ও প্রভাব ফেলে। বিজ্ঞান এখনও এই বিষয়ে উৎঘাটন করতে পারেনি। নারী-পুরষ একেবারেই সম্পূর্ণ ভিন্ন ভাষায় কথা বলেনা। ভুল বোঝাবুঝি কাম্য নয়। সার্থক যোগাযেগের অনেক পন্থা রয়েছে। সবচেয়ে সহজটি হলঃ ভালভাবে শোনা।