বাংলা » ল্যাটভিয়ান   গাড়ী খারাপ হয়ে গেছে


৩৯ [ঊনচল্লিশ]

গাড়ী খারাপ হয়ে গেছে

-

39 [trīsdesmit deviņi]

Auto avārija

৩৯ [ঊনচল্লিশ]

গাড়ী খারাপ হয়ে গেছে

-

39 [trīsdesmit deviņi]

Auto avārija

পরবর্তী দেখার জন্য ক্লিক করুনঃ   
বাংলাlatviešu
সবথেকে কাছের পেট্রোল পাম্প কোথায়? Ku- i- t----- b------ u------- s------?
আমার টায়ার ফেটে গেছে ৷ Ma--- m------ i- c---- r----.
আপনি কি টায়ার পাল্টাতে পারবেন? Va- J-- v---- a------- r-----?
   
আমার দু – এক লিটার ডিজেল চাই ৷ Ma- i- n----------- p---- l---- d-------------.
আমার কাছে পেট্রোল নেই ৷ Ma- v---- n-- b------.
আপনার কাছে কি পেট্রোলের ডিবে আছে? Va- J--- i- r------- k---- d--------?
   
আমি কোথা থেকে ফোন করতে পারি? Ku- e- t- v----- p--------?
আমার দড়ি দিয়ে গাড়ী টেনে নিয়ে যাবার পরিষেবা চাই ৷ Ma- i- n----------- a------- d------- b------ a---------- p------------.
আমি একটা গ্যারেজ খুঁজছি ৷ Es m------ r-------------.
   
একটা দুর্ঘটনা ঘটেছে ৷ Ir n------ s-------- n---------.
সবথেকে কাছে কোথায় টেলিফোন আছে? Ku- i- t------- t-------?
আপনার কাছে মোবাইল / সেল ফোন আছে? Va- J--- i- l---- m------- t-------?
   
আমাদের সাহায্য চাই ৷ Mu-- i- n----------- p--------.
ডাক্তারকে ডাকুন! Iz------- ā----!
পুলিশ ডাকুন! Iz------- p-------!
   
অনুগ্রহ করে আপনার কাগজপত্র দেখান। Jū-- d---------- l----!
অনুগ্রহ করে আপনার লাইসেন্স দেখান ৷ Jū-- a----------- a--------- l----!
অনুগ্রহ করে আপনার গাড়ীর কাগজপত্র দেখান ৷ Jū-- k----- m------ v------- a--------- l----!
   

মেধাবী ভাষাবিদ শিশু

কথা বলতে পারার অনেক আগেই বাচ্চারা ভাষা সম্পর্কে জানে। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা এটা দেখিয়েছে। শিশু উন্নয়ন গবেষণা করা হয় বিশেষ শিশু গবেষণা কেন্দ্রে। সেখানে কিভাবে বাচ্চারা ভাষা শিখে তাও গবেষণা করা হয়। আমরা যতটা ভাবি বাচ্চারা তার চেয়ে অনেক বেশী বুদ্ধিমান। এমনকি ৬ মাস বয়স থেকেই তাদের ভাষাগত সক্ষমতা থাকে। যেমন, তারা তাদের স্থানীয় ভাষা বুঝতে পারে। ফরাসী ও জার্মান ভাষার বাচ্চারা নির্দিষ্ট কিছু শব্দে ভিন্নভাবে প্রতিক্রিয়া দেখায়। বিভিন্ন শ্বাসজনিত ধরণের ফলে ব্যবহারে বিভিন্নতা আসে। নিজেদের ভাষার স্বর বাচ্চারা অনুভূব করতে পারে। খুব ছোট বাচ্চারাও কিছু শব্দ মনে রাখতে পারে। বাচ্চাদের ভাষা উন্নয়নের জন্য বাবা-মা’র ভূমিকা খুব গুরুত্বপূর্ণ। কেননা জন্মের পরপরই বাচ্চাদের যোগাযোগের প্রয়োজন হয়।

তারা বাবা-মা’র সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে। বলাবাহুল্য, এই যোগাযোগ ইতিবাচক হওয়া উচিৎ। তাই তাদের সাথে জোরে কথা বলা ঠিক না। খুব কম কথা বলাও ভুল। জোরে কথা বলা বা চুপ থাকা শিশুদের উপর খারাপ প্রভাব ফেলে। খারাপভাবে তাদের ভাষার উন্নয়ন প্রভাবিত হতে পারে। মায়ের পেটেই শিশুর শেখা শুরু হয়ে যায়। জন্মগ্রহনের আগেই তারা কথা শুনে প্রতিক্রিয়া দেখায়। শব্দগত সংকেত তারা তখনই বুঝতে পারে। জন্মের পর তারা সেই শব্দগুলো চিনতে পারে। এমনকি অনাগত শিশুও ভাষার ছন্দ বুঝতে পারে। গর্ভে থেকেই শিশু তার মায়ের কন্ঠস্বর শুনতে পায়। তাই অনাগত শিশুর সাথেও আপনি কথা বলতে পারেন। কিন্তু অতিরিক্ত মাত্রাই নয়। বাচ্চাটি জন্স নেওয়ার পর শেখার জন্য অনেক সময় পাবে!